১০ উপজেলায় বিএনপির ডাকে সকাল-সন্ধ্যা হরতাল চলছে

0
968

প্রথম দফা উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে কেন্দ্র দখল ও ভোট জালিয়াতির অভিযোগে দেশের ১০ উপজেলায় বিএনপির ডাকে সকাল-সন্ধ্যা হরতাল চলছে । উপজেলাগুলো হচ্ছে- মেহেরপুর সদর উপজেলা, বরিশালের দক্ষিণ বাকেরগঞ্জ ও গৌরনদী উপজেলা, পাবনার সুজানগর উপজেলা, সিরাজগঞ্জের কাজীপুর, বগুড়ার সোনাতলা, ভোলার লালমোহন, ঝিনাইদহ সদর ও শৈলকুপা উপজেলা এবং কিশোরগঞ্জের বাজিতপুর।

গতকাল (বুধবার) দুপুরে সংবাদ সম্মেলন করে হরতালের ডাক দেন এসব উপজেলা বিএনপির নেতারা। পরে উপজেলা নির্বাচনের প্রথম পর্বে ৯৭ উপজেলায় বিভিন্ন কেন্দ্র দখল ও জালভোট পড়েছে বলে অভিযোগ করেন বিএনপির যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী। একই সঙ্গে এসব অভিযোগে ১০ উপজেলায় বৃহস্পতিবার সকাল-সন্ধ্যা হরতাল দিয়েছে দলটি।

বিএনপির নয়াপল্টন কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে আয়োজিত সংবাদ ব্রিফিংয়ে রিজভী বিভিন্ন উপজেলায় ভোট কেন্দ্র দখলের নানা চিত্র তুলে ধরে রিজভী বলেন, স্থানীয়ভাবে যেসব উপজেলা থেকে খবর আসছে, তাতে বুঝা যাচ্ছে ক্ষমতাসীন দল ৫ জানুয়ারি ভোটারবিহীন নির্বাচনে উত্সাহিত হয়ে উপজেলা নির্বাচনেও একতরফাভাবে করছে। এর মধ্যে আমরা শরিয়তপুরের ভেদরগঞ্জ, ঢাকার নবাবগঞ্জ, মানিকগঞ্জের দৌলতপুর ও শিবালয়, বগুড়ার সোনাতলা, সিরাজগঞ্জের সদর ও কাজীপুর, গাইবান্ধার গোবিন্দগঞ্জ, কিশোরগঞ্জের বাজিপুর, বরিশালের গৌরনদী ও বাকেরগঞ্জ, খুলনার দিঘলিয়া, মেহেরপুরের সদর, ঝিনাইদহের শৈলকুপা ও সদর, জামালপুরের সরিষাবাড়ী, ভোলার লালমোহন, শরিয়তপুরের গোসাইরহাট, পাবনার সুজানগর প্রভৃতি কেন্দ্রে আওয়ামী লীগের ক্যাডাররা ভোট কেন্দ্র দখল করেছে। বিরোধী দলের সমর্থিত প্রার্থীর এজেন্টদের বের করে দিয়েছে। এর প্রতিবাদে স্থানীয়ভাবে ১০টি উপজেলায় বৃহস্পতিবার সকাল-সন্ধ্যা হরতাল ডাকা হয়েছে।

প্রথম ধাপের নির্বাচনে ৭৬৩টি কেন্দ্রে অনিয়ম হয়েছে দাবি করে রিজভী বলেন, ৫ জানুয়ারি নির্বাচনে যে কলঙ্কের তিলক এই সরকার নিজেদের কপালে লেপন করেছে সেই ধারাই উপজেলা নির্বাচনেও তারা অব্যাহত রেখেছে। ভোট ছাড়া অটোমেটিক সংসদে অটোমেটিক প্রধানমন্ত্রী আজ অদ্ভুত এক নির্বাচন করলেন। ক্ষমতাসীনদের এহেন কর্মকাণ্ডের নিন্দা জানান তিনি।