মিথিলাএখন সৃজিতের ঘরনি

0
783

মিথিলাএখন সৃজিতের ঘরনি, হয়েছেন মিসেস. রশিদ মুখার্জি।

বিনোদন ডেস্ক: নানা গুঞ্জনের অবসান ঘটিয়ে বিয়ের পিঁড়িতে বসেন বাংলাদেশের জনপ্রিয় মডেল-অভিনেত্রী, গায়িকা ও শিক্ষকরাফিয়াথ রশিদ মিথিলা ও ভারতের জনপ্রিয় নির্মাতা সৃজিত মুখার্জি। গত ৬ ডিসেম্বর ২০১৯ সন্ধ্যায় দক্ষিণ কলকাতায় সৃজিতের বাসায় তাদের বিয়ে রেজিস্ট্রি করা হয়। মেরুন কালারের দেশি জামদানি শাড়ি আর ট্রেডিশনাল স্বর্ণের গহনায় নিজেই সাজেন মিথিলা। সৃজিত পরেন কালো পাঞ্জাবি সঙ্গ লাল কোট। বিয়ে উপলক্ষে কলকাতায় এসেছিলেন মিথিলার বাবা, মা এবং মেয়ে আইরা। তবে এর কিছুদিন আগে থেকেই তিনি দুই বাংলায় আলোচনার শিখরে। অবশেষে সৃজিতের ঘরনি হলেন মিথিলা। এখন তিনি হয়ে গেছেন মিসেস. রশিদ মুখার্জি।

মিথিলার জন্ম ঢাকায়। পরবর্তীতে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে রাষ্ট্রবিজ্ঞানে স্নাতক ও স্নাতকোত্তর পাশ করেন। শুধু তাই নয় ব্রাক ইউনিভার্সিটি থেকে আর্লি চাইল্ডহুড ডেভেলপমেন্ট নিয়ে দ্বিতীয় স্নাতকোত্তর ডিগ্রিতে স্বর্ণপদক রয়েছে তাঁর। লেখাপড়ার পাশাপাশি কত্থক, মণিপুরি ও ভরতনাট্যমের তালিম নিয়েছেন মিথিলা। শিক্ষকতা করেছেন স্কুল ও কলেজে।

অভিনয়ের কেরিয়ারেও বহু জনপ্রিয় কাজ করেছেন তিনি। পরিবারে চার ভাই-বোনের বড় মিথিলা ২০০৬ সালে বিয়ে করেন জনপ্রিয় গায়ক তহসান রহমান খানকে। পরে বহু গানের অ্যালবামে একসঙ্গে পাওয়া গিয়েছে তাদের। ২০১৩ সালের ৩০ এপ্রিল জন্ম তাদের একমাত্র কন্যাসন্তান আইরার। এরপরেই ২০১৭ সালে বিবাহ বিচ্ছেদ হয় তহসান ও মিথিলার।

তাঁকে ঘিরে বিতর্কও কম হয়নি বাংলাদেশে। পরিচালক ইফতেখার আহমেদ ফাহমির কিছু ব্যক্তিগত ছবি সোশাল মিডিয়ায় ফাঁস হয়ে যায় মিথিলার। শুরু হয় সমালোচনা।

অভিনয় ও গানের পাশাপাশি সমাজকর্মী হিসাবে কাজ শুরু করেন মিথিলা। সম্প্রতি ‘স্কুলের প্রথম দিন’ ও ‘লাল বেলুন’ নামে দুটি বই প্রকাশিত হয়েছে তাঁর। জেনেভায় মধুচন্দ্রিমার পর একটি বিশ্ববিদ্যালয়ে পিএইচডির রেজিস্ট্রেশন করার কথা রয়েছে ।