ভালবাসা মানে না জাত কুল 

0
439

ভালবাসা মানে না জাত কুল 

লন্ডনের গ্রাহাম স্টুয়ার্ড আর চট্টগ্রামের কন্যা ফেরদৌসি কবির মুক্তা। তাদের দীর্ঘদিনের ভালোবাসার পরণতি ঘটেছে চট্টগ্রামের ঐতিহ্যে জমকালো আয়োজনে। চট্টগ্রামে এসেই বাংলাদেশী সাংস্কৃতিতে মুক্তাকে বিয়ে করলেন ব্রিটিশ নাগরিক গ্রাহাম। তবে মুক্তাকে স্ত্রী হিসেবে পেতে অনেক কিছুই ত্যাগ করতে হয়েছে গ্রাহামকে। প্রথমত খ্রীষ্টান ধর্ম ত্যাগ করে তাকে মুসলমান হতে হয়েছে। নাম বদলে তিনি এখন সায়মন কবির। অতঃপর চট্টগ্রামের পারিবারিক ঐতিহ্যে আনুষ্ঠানিকভাবে গ্রাহামের সাথে বিয়ে হয়েছে মুক্তার। এই বিয়ের অনুষ্ঠানটি সম্পন্ন হয় গতকাল শুক্রবার রাতে। এর আগে বৃহস্পতিবার অনুষ্ঠিত হয় মেহেদী সন্ধ্যা ।

ফেরদৌসি কবির মুক্তার বাবা হুমায়ুন কবির হেলালী  জানান, তাদের গ্রামের বাড়ি চট্টগ্রামের সন্ধীপে। তবে দীর্ঘদিন ধরে তিনি পরিবার নিয়ে চট্টগ্রামের লাভলেইন এলাকায় বসবাস করছেন। লন্ডনে আগে থেকেই মুক্তার বড় বোন এবং বড়ভাই রয়েছেন। মুক্তার বোন পেশায় ব্যারিষ্টার। তিনি লন্ডনে স্বামী সন্তান নিয়ে স্থায়ীভাবে বসবাস করছেন। সেই সুত্রে মুক্তারও লন্ডনে আসা যাওয়া। এর মধ্যে, মুক্তা ২০১৭ সালে লন্ডনের নটিংহাম ইউনিভার্সিটিতে উচ্চশিক্ষা গ্রহন করতে যান। সেখানে পড়তে পড়তেই পরিচয় ঘটে ব্রিটিশ তরুন গ্রাহাম ষ্টুয়ার্ট এর সাথে। এর পর প্রেম, দীর্ঘ দুই বছরের প্রেমের পরিণতি টানতে মুক্তাকে বিয়ে করতে চান গ্রাহাম। প্রস্তাব দেয়া হয় পারিবারিকভাবে। কিন্তু মুক্তার পরিবারের শর্ত মুক্তাকে বিয়ে করতে হলে মুসলমান হতে হবে, বাংলাদেশে এবং বাংলাদেশী রীতিতেই বিয়ে হতে হবে।

প্রেমের কাছে হার মানেন গ্রাহাম। মুক্তাকে পেতে ধর্ম ত্যাগ করে নাম রাখেন সায়মন। নামের শেষে মুক্তাদের পারিবারিক টাইটেল হিসেবে যোগ করেন কবির। গ্রাহাম স্টুয়ার্ড হয়ে যান সায়মন কবির। সর্বশেষ গত ১৪ ডিসেম্বর ভিসা নিয়ে চট্টগ্রামে আসেন গ্রাহাম। এরপর চলতে তাকে বিয়ের আয়োজন। বাঙালি রীতি ও চট্টগ্রামের ঐতিহ্য অনুযায়ী ২৬ ডিসেম্বর গায়ে হলুদের অনুষ্ঠান হয়। ২৭ ডিসেম্বর পারিবারিকভাবে তাদের বিবাহ অনুষ্ঠান সম্পন্ন হয়।

নিজের প্রেম ও বিয়ে সম্পর্কে গ্রাহাম স্টুয়ার্ড বলেন, বাংলাদেশের বিয়ের সংস্কৃতি সত্যি অসাধারণ। মুক্তার প্রতি অসীম ভালোবাসার কারনেই তিনি পুরো বাংলাদেশকে ভালোবেসে ফেলেছেন। চট্টগ্রামের বিয়ে অনুষ্ঠান এবং পারিবারিক নানা আনুষ্ঠানিকতা চট্টগ্রামের মানুষের প্রতি তার আকর্ষন অনেক বাড়িয়ে দিয়েছে বলে জানান স্টুয়ার্ড। শীঘ্রই নববিবাহিতা স্ত্রী মুক্তাকে নিয়ে লন্ডনে চলে যাবেন বলে জানান গ্রাহাম স্টুয়ার্ড প্রকাশ সায়মন কবির।