৬ বছরেও কার্যকর হয়নি উচ্চ আদালতের নির্দেশ

0
350

উচ্চ আদালতের নির্দেশের ছয় বছর পরও সাইনবোর্ড ও বিলবোর্ডে বাংলা লেখা নিশ্চিত করা যায়নি। মাঝে মাঝে ঢাকার দুই সিটি করপোরেশন ইংরেজি সাইনবোর্ডের বিরুদ্ধে অভিযান চালালেও তার যথাযথ তদারকি নেই।

রাজধানীসহ দেশের বিভিন্ন এলাকায় ইংরেজি শব্দে ব্যবসা প্রতিষ্ঠানের নাম রাখার প্রবণতা বেশি। বেসরকারি শিক্ষা প্রতিষ্ঠান, ইংরেজি মাধ্যম স্কুল, দোকানপাট, শিল্প ও ব্যবসা প্রতিষ্ঠানের বেশিরভাগ সাইনবোর্ড ইংরেজিতে লেখা। তবে, সরকারি দপ্তরের সাইনবোর্ড অধিকাংশ ক্ষেত্রে বাংলায় রূপান্তর হয়েছে। এছাড়া যানবাহনের ডিজিটাল নম্বর প্লেটগুলো বাংলায় লেখা হচ্ছে। ২০১৪ সালের ১৭ ফেব্রুয়ারি হাইকোর্টের এক আদেশে দেশের সব সাইনবোর্ড, বিলবোর্ড, ব্যানার, গাড়ির নম্বর প্লেট, সরকারি দপ্তরের নামফলক এবং গণমাধ্যমে ইংরেজি বিজ্ঞাপন ও মিশ্র ভাষার ব্যবহার বন্ধ করতে সরকারকে ব্যবস্থা নিতে বলা হয়।

এরই ধারাবাহিকতায় ট্রেড লাইসেন্স নেওয়ার সময় সিটি করপোরেশনের পক্ষ থেকে সাইনবোর্ডে বাংলা ব্যবহারের বিষয়ে নির্দেশনা দেয়। সংবিধানের ৩ অনুচ্ছেদে বলা হয়েছে, প্রজাতন্ত্রের রাষ্ট্রভাষা বাংলা। এছাড়া বাংলা ভাষা প্রচলন আইন, ১৯৮৭-এর ৩ ধারায়ও সরকারি অফিস, আদালত, আধা সরকারি ও স্বায়ত্তশাসিত প্রতিষ্ঠানে চিঠিপত্র, আইন-আদালতের সওয়াল-জবাব এবং অন্য কাজে বাংলার ব্যবহার বাধ্যতামূলক করা হয়েছে।