বিশ্বে সামরিক ব্যয়ে বিভিন্ন দেশের অবস্থান

0
463
আন্তর্জাতিক ডেস্ক:  সুইডেনের ‘স্টকহোম ইন্টারন্যাশনাল পিস রিসার্চ ইন্সটিটিউট’ (সিপ্রি) বা আন্তর্জাতিক শান্তি গবেষণা ইনস্টিটিউট (এসআইপিআরআই) ২০১৯ সালে সামরিক খাতে বিভিন্ন দেশের খরচের তথ্য প্রকাশ করেছে৷ ওই গবেষণা থেকে জানা যায়, ২০১৯ সালে বিশ্বের মোট সামরিক ব্যয় ছিল এক হাজার ৯১৭ বিলিয়ন মার্কিন ডলার। যা ২০১৮ সালের বৈশ্বিক সামরিক ব্যয়ের তুলনায় ৩.৬ শতাংশ বেশি। এই ব্যয়বৃদ্ধি ২০১০ সালের পর বা গত দশকের মধ্যে সর্বোচ্চ প্রবৃদ্ধির হার৷। প্রথমবারের মতো শীর্ষ তিন-এ এশিয়ার দুটি দেশের নাম এসেছে৷ ব্যয়ে শীর্ষ পাঁচ দেশের মধ্যে রয়েছে চীন, ভারত, রাশিয়া ও সৌদি আরব। এসআইপিআরআই বলছে, ২০১৯ সালে সামরিক খাতে বৈশ্বিক খরচ ছিল ১৯১৭ বিলিয়ন ডলার৷ এর মধ্যে ৬২ শতাংশই করেছে শীর্ষ পাঁচটি দেশ৷
২০১৯ সামরিক ব্যয়ে বিশ্বে শীর্ষস্থানে রয়েছে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র। ২০১৯ সালে ব্যয় ৫.৩ শতাংশ বেড়ে হয়েছে ৭৩২ বিলিয়ন ডলার, যা পুরো বিশ্বের সামরিক ব্যয়ের ৩৮ শতাংশ৷ খরচ বাড়ার কিছু কারণের মধ্যে আছে পুরনো অস্ত্র ও পারমাণবিক বোমার সংগ্রহশালার আধুনিকীকরণ এবং প্রায় ১৬ হাজার নতুন সামরিক সদস্য নিয়োগ৷ এছাড়া চীনের জন্যও যুক্তরাষ্ট্র ব্যয় বাড়িয়েছে বলে মনে করছেন বিশ্লেষকরা৷
এসআইপিআরআই প্রতিবেদনে প্রথমবারের মতো সামরিক খাতে শীর্ষ তিন খরচের তালিকায় এশিয়ার দুটি দেশের নাম এসেছে৷ তালিকায় দ্বিতীয় স্থানে আছে চীন৷ ২০১৯ সালে তাদের ব্যয় ৫.১ শতাংশ বেড়ে হয়েছে ২৬১ বিলিয়ন ডলার৷
ভারত তৃতীয় পাকিস্তান ও চীনের সঙ্গে সম্পর্কে উত্তেজনা থাকায় ২০১৯ সালে ভারত সামরিক খাতে ৭১.১ বিলিয়ন ডলার খরচ করেছে, যা ২০১৮ সালে ছিল ৬৬.৫ বিলিয়ন ডলার৷
চারে রাশিয়া, ২০১৯ সালে রাশিয়ার সামরিক ব্যয় সাড়ে চার শতাংশ বেড়ে হয়েছে ৬৫.১ বিলিয়ন ডলার, যা দেশটির জিডিপির ৩.৯ শতাংশ৷
আগের তালিকায় তিন নম্বরে ছিল সৌদি আরব৷ এবারের তালিকায় নেমে গেছে পাঁচে । ২০১৯ সালে ১৬ শতাংশ ব্যয় কমিয়েছে দেশটি৷ গতবছর দেশটি ৬১.৯ বিলিয়ন ডলার খরচ করেছে৷ ইয়েমেনে সামরিক অভিযান ও ইরানের সঙ্গে উত্তেজনার মধ্যে সৌদি আরবের সামরিক ব্যয় কমানোতে বিস্মিত হয়েছেন বিশ্লেষকরা৷
ইউরোপিয়ান দেশের মধ্যে প্রথম ফ্রান্স যা বিশ্ব তালিকায় ষষ্ঠ ।২০১৯ সালে ফ্রান্স ৫০.১ বিলিয়ন ডলার খরচ করেছে, যা দেশটির জিডিপির ১.৯ শতাংশ৷ ২০১৮ সালে তাদের ব্যয় ছিল ৫১.৪ বিলিয়ন ডলার৷
তালিকায় জার্মানির অবস্থান সাত-এ। ২০১৯ সালে জিডিপির ১.৩৮ শতাংশ ব্যয় করেছে জার্মানি, সংখ্যার হিসেবে যা ৪৯.৩ বিলিয়ন ডলার৷ ২০১৮ সালে ছিল ৪৬.৫ বিলিয়ন৷ অর্থাৎ, জার্মানির ব্যয় বেড়েছে ১০ শতাংশ, যা এসআইপিআরআই-এর তালিকার শীর্ষ ১৫টি সামরিক খরচের দেশের মধ্যে সর্বোচ্চ৷ রাশিয়ার কাছ থেকে হুমকি বাড়া এর একটি কারণ বলে মনে করছেন এসআইপিআরআই-এর বিশ্লেষকরা৷
তালিকায় যুক্তরাজ্য আটে ।২০১৯ সালে দেশটি জিডিপির ১.৭ শতাংশ সামরিক খাতে ব্যয় করেছে- ৪৮.৭ বিলিয়ন ডলার৷ ২০১৮ সালে সংখ্যাটি ছিল ৪৯.৮ বিলিয়ন ডলার৷
এছাড়াও এসআইপিআরআই-এর তালিকায় শীর্ষ ১০ সামরিক খরচে দেশের তালিকায় নয় ও দশ নম্বরে যথাক্রমে আছে জাপান (৪৭.৬ বলিয়ন ডলার) ও সাউথ কোরিয়া (৪৩.৯ বিলিয়ন ডলার)৷
এ ক্ষেত্রে ২০১৯ সালে বাংলাদেশের সামরিক ব্যয় ছিল ৪,৩৫৮ মিলিয়ন ডলার, ২০১৮ সালে যা ছিল প্রায় ৩,৬৯২ মিলিয়ন ডলার৷