করাচিতে ‍পিআইএর যাত্রিবাহি বিমান দুর্ঘটনা:

0
615

শুক্রবার মে ২২, পাকিস্তানের করাচিতে পাকিস্তান ইন্টারন্যাশনাল এয়ারলাইন্সের বিমান বিধ্বস্ত হয়েছে । বিমানের ফ্লাইট রেকর্ডার উদ্ধার করা হয়েছে, ঘটনার কারণ তদন্তের প্রক্রিয়া শুরু করেছে সরকার। পাকিস্তানের জাতীয় এয়ারলাইনসের বিমানটিতে ৯৯ জন আরোহী  ছিলেন । তার মধ্যে ৯১ জন যাত্রী আর ৮ জন ক্রু ছিল। তাদের মধ্যে দু’জন ভাগ্যক্রমে বেঁচে গেছেন, বাকি ৯৭ জনের সবাই নিহত হয়েছেন বলে কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে। মৃতদেহগুলো আত্মীয়স্বজনদের হাতে তুলে দেবার আগে ডিএনএ টেস্ট করে সেগুলো শনাক্ত করার কাজ চলছে।

বিমান বিধ্বস্ত হবার কারণ এখনো জানা যায় নি, তবে সংবাদমাধ্যমের খবরে জানা যায়, লাহোর থেকে আসা ফ্লাইটটির পাইলট একবার অবতরণ করার চেষ্টা করেও ব্যর্থ হয়েছিলেন এবং কারিগরি ত্রুটির কথা কনট্রোল টাওয়ারকে জানিয়েছিলেন। সংবাদমাধ্যমে প্রচার হওয়া এক রেকর্ডিংএ পাইলট বিমানটির ইঞ্জিন বিকল হবার কথা বলছিলেন বলে শোনা গেছে।

পিআইএ এর মুখপাত্র আবদুল্লাহ হাফিজ পাকিস্তানের সংবাদ মাধ্যমকে জানিয়েছেন,  স্থানীয় সময় দুপুর আড়াইটা নাগাদ এয়ার ট্রাফিক কন্ট্রোলের সঙ্গে দুর্ঘটনাকবলিত পিকে ৮৩০৩ ফ্লাইটটির যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন হয়ে যায়৷ এয়ার বাস এ ৩২০ মডেলের উড়োজাহাজটি করাচির জিন্নাহ আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরের কাছে একটি আবাসিক এলাকায় বিধ্বস্ত হয়েছে বলে নিশ্চিত করে দেশটির বেসামরিক বিমান চলাচল কর্তৃপক্ষ৷

স্থানীয় গণমাধ্যম ও সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে বিমান বিধ্বস্ত হওয়ার পরের তাৎক্ষণিক ছবি প্রকাশ হয়েছে৷ এসময় দুর্ঘটনাস্থল থেকে কালো ধোঁয়া উঠতে দেখা যায়৷ দুর্ঘটনার পরপরই হেলিকপ্টার নিয়ে উদ্ধার কাজে অংশ নেয় পাকিস্তানের সামরিক বাহিনী৷ করোনা ভাইরাসের প্রকোপ ঠেকাতে বেশ কিছুদিন বন্ধ রাখার পর সম্প্রতি বাণিজ্যিক বিমান চলাচল চালু করেছে পাকিস্তান৷