ঢাকা আন্তর্জাতিক চলচ্চিত্র উৎসব ২০২০

0
767

ঢাকা আন্তর্জাতিক চলচ্চিত্র উৎসব ২০২০

পর্দা উঠল ঢাকা আন্তর্জাতিক চলচ্চিত্র উৎসব ২০২০-এর। দেশি-বিদেশি শিল্পী, নির্মাতা, চলচ্চিত্র সমালোচক, সাংবাদিক, প্রযোজক ও দর্শকদের অংশগ্রহণে এরইমধ্যে জমে উঠেছে উৎসবটি। এই আয়োজনের অংশ হিসেবেই ‘চলচ্চিত্রে নারী’ বিষয়ক ৬ষ্ঠ ঢাকা আন্তর্জাতিক সম্মেলন অনুষ্ঠিত হচ্ছে।

ঢাকা ক্লাবে দুই দিনব্যাপী সম্মেলনটি শুরু হয় রবিবার (১২ জানুয়ারি) সকাল ৯ টায়। চলে বিকেল পাঁচটা পর্যন্ত। সোমবার (১৩ জানুয়ারি) সমাপনী দিনে একই সময়ে সম্মেলন অনুষ্ঠিত হবে। প্রতিবারের মতো এবারও দেশি-বিদেশি চলচ্চিত্র ব্যক্তিত্বরা চলচ্চিত্রে নারীদের অংশগ্রহণ, সুযোগ-সুবিধা এবং প্রত্যাশাসহ বেশ কিছু বিষয় নিয়ে আলোচনা করেন এই সম্মেলনে।

সম্মেলন উদ্বোধন করেন যুক্তরাষ্ট্রের চলচ্চিত্র বিষয়ক প্রশিক্ষক ও লেখক এবং উৎসব পরামর্শক সিডনি লেভাইন। এসময় উপস্থিত ছিলেন পোল্যান্ডের চলচ্চিত্র নির্মাতা ও চিত্রনাট্যকার জোয়ানা কোস-ক্রাউজ এবং ঢাকা আন্তর্জাতিক চলচ্চিত্র উৎসবের চেয়ারপারসন ও প্রফেসর কিশোর কামাল। সম্মেলনে আলোচনায় অংশ নেন অস্ট্রেলিয়ার অভিনেত্রী-শিক্ষক ও চলচ্চিত্র নির্মাতা রবিন হিউগেন, সাংবাদিক ও পুরস্কারজয়ী চলচ্চিত্র সমালোচক এবং বার্লিন চলচ্চিত্র উৎসবের কোয়ার্ডিনেটর মীনাক্ষী সিন্ধি, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের গণযোগাযোগ ও সাংবাদিকতা বিভাগের শিক্ষক অধ্যাপক ড. গীতিয়ারা নাসরিন, ইরানি প্রযোজক ও পরিবেশক ইলাহি নবাকথসহ অনেকে। কর্মশালায় প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন অভিনেত্রী ও সংগঠক বন্যা মির্জা এবং চৈতালী সামাদ্দার।

সম্মেলনে উপস্থিত ব্যক্তিবর্গ বাংলাদেশের নারীদের চলচ্চিত্রে অংশগ্রহণ নিয়ে সন্তুষ্টি প্রকাশ করেন। তারা বিভিন্ন বিষয় পর্যালোচনা করে নারীদের অংশগ্রহণ বৃদ্ধি করার প্রত্যাশা ব্যক্ত করেন। তাদের কাজকে সুগম ও সুন্দর করার নানা পরামর্শ দেন। অষ্টাদশ ঢাকা আন্তর্জাতিক চলচ্চিত্র উৎসবে এশিয়ান প্রতিযোগিতা বিভাগ, রেট্রোস্পেকটিভ বিভাগ, বাংলাদেশ প্যানারোমা, সিনেমা অব দ্য ওয়ার্ল্ড, চিল্ড্রেন্স ফিল্ম, স্পিরিচুয়াল ফিল্মস, ইন্ডিপেনডেন্ট ফিল্ম এবং উইমেন্স ফিল্ম সেশনে বাংলাদেশসহ ৭৪টি দেশের মোট দুইশ’ ২০টি চলচ্চিত্র প্রদর্শিত হবে।

এবারের চলচ্চিত্র উৎসবের স্লোগান ‘নান্দনিক চলচ্চিত্র, মননশীল দর্শক, আলোকিত সমাজ’। রাজধানীর কেন্দ্রীয় গণগ্রন্থাগারের শওকত ওসমান স্মৃতি মিলনায়তন, জাতীয় জাদুঘরের কবি সুফিয়া কামাল ও প্রধান মিলনায়তন, শিল্পকলা একাডেমির চিত্রশালা ও নৃত্যশালা মিলনায়তন, অঁলিয়াস ফ্রঁয়েজ মিলনায়তন, মধুমিতা সিনেমা হল ও স্টার সিনেপ্লেক্সে একযোগে চলচ্চিত্রগুলো প্রদর্শিত হচ্ছে। এছাড়া উৎসবের অংশ হিসেবে আগামী ১৪ জানুয়ারি দিনব্যাপী আয়োজন করা হয়েছে দেশীয় চলচ্চিত্রের সঙ্গে আন্তর্জাতিক চলচ্চিত্রকারদের ভাবনার মিথষ্ক্রিয়ামূলক অনুষ্ঠান ‘ওয়েস্ট মিটস ইস্ট’। ১৯ জানুয়ারি উৎসবের পর্দা নামবে।