কবিতা: সেলিম কোরেশী

0
16

ধন্যবাদ

সেলিম কোরেশী

আমি বলি তোমাকে করুনাময়;

তারা বলে তুমি প্রতিহিংসাময়,

তাদের কথায় আছে ধার, আমি ধার  দারিনা  ওসবের।

আজ  ভোরেও  আবার সবাই গেয়ে গেলো তোমার জয়গান;

এসেছিলো তাঁরা উপসনালয়ের  কাটগড়ায় ,

নদীর পারে গঙ্গা স্নানে , গির্জার নতজানুতে , সেজদার কাতরে কাতারে

শান্তির জন্য কুমীরঅশ্রুতে।

 

তারাও এসেছিল পাখি হয়ে গান গেয়ে গেয়ে ,

তোমার স্তব উটেছিল ধীর হতে জোরে

জলজের ধড় হতে ,  ঢেউএর ভাঙ্গন হতে , বৃশ্চিকের বিষ হতে ,

সিংহের বুক ফাটানো আর্তনাদ  হতে ,

তেলোয়ারের ধার থেকে , ফাঁসির রজ্জু হতে ,

ছুনামির ফেনা হতে , লাভার লাল হতে ,

ভুমিকম্পের অপরাধী লুন্টন হতে ,

সাইক্লোনের কালো চোখের আভরণ হতে ।

 

শুনেছিলে কি সকল নিনাদ আর আরাধনার  বহ্নি শিখার  মাতম ।

গোলাপের বুকে কি তাই তুলে এনেছিলে  মৌমাছি

কান্সারের প্রকৌস্টের কোষকে  দিয়েছিলে শেফালি ফুলের  গোপন সুবাস।

 

আবার তুমিই কি বলেছিলে বানাও বারুদ

ভরে দাও তারপর ইস্পাতের নলে নলে;

করেছিলে কি তাই মরুভুমিকে রক্তের লোহিত সাগর,

রায়ের বাজারের বধ্যভুমিতে বরেণ্য যুবতী লেখিকার দেহে অশালীন শবের স্রোত ।

লাশের মিছিলের অভ্যন্তরে কেন খেলেছিলে নিয়ে যৌবন;

কেন ঘাতক কে দাও সিংহাসন ।

কবিতা পড়া প্রেমিকাকে করে তোলো বিশ্বাস ঘাতক ।

 

তবুও করে যাই প্রশংসা তোমার

সকাল সন্ধ্যায় ধর্মের আলোয়ান পরে ।

এনে দিও  শুধু ফুলের সুভাস আর শান্তির পায়রা ।

সেলিম কোরেশী; ডালাস

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here